আজ ১৬ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

ঐতিহ্যবাহী ঘোড়া দৌড় দেখতে আম বাগানে হাজারো মানুষের ঢল-দৈনিক বাংলার নিউজ

 

ফাহিম ফরহাদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জঃ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ঐতিহ্যবাহী ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা কেন্দ্রীয় গোরস্থান সংলগ্ন আম বাগান মাঠে এই ঘোড়া দৌড় দেখতে ভিড় করে হাজারো মানুষ। বালিয়াডাঙ্গা শান্তি মিশনের আয়োজনে শনিবার (২৬ নভেম্বর) বিকেলে এই ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আসা ঘৌড়া ছাড়াও বগুড়া, নওগাঁ, পাবনা জেলার ৫০টি ঘোড়া অংশগ্রহণ করে।

ঘোড়ার আকার অনুযায়ী তিনটি গ্রুপে ভাগ হয়ে প্রতিযোগীরা অংশগ্রহণ করেন। পরে ঘৌড়া দৌড় প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ। এসময় আম বাগানে উপস্থিত হয়ে ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগিতা উপভোগ করেন হাজার হাজার নারী-পুরুষ। দিনব্যাপী চলা প্রতিযোগিতায় সকাল থেকেই অংশগ্রহণ করেন প্রতিযোগীরা, পরে বিকেলে প্রতিযোগিতার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তসিকুল ইসলাম তসি। এসময় তিনি বলেন, গ্রাম বাংলার জনপ্রিয় ও ঐতিহ্যবাহী খেলা ঘোড়া দৌড়। কিন্তু আধুনিক সমাজে এই খেলাটি হারিয়ে যেতে বসেছে। এই খেলায় আজকের উপস্থিতি লক্ষ্য করলেই আমরা বুঝতে পারব, মানুষজন এখনও কি পরিমাণ ভালোবাসে এই খেলাটি। দূর-দূরান্ত থেকে নারী-পুরুষরা এই খেলা উপভোগ করতে এসেছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিন খাতুন বলেন, এই খেলাকে কেন্দ্র করে এই এলাকার মেয়ে বাবার বাড়িতে বেড়াতে এসেছে। নারী-পুরুষের উপস্থিতি ইদের মতো উৎসবের আমেজ তৈরি করেছে। এই ঐতিহ্যবাহী খেলা চলমান রাখতে আগামীতে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে নানারকম সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউল হক কমল, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি তাকবিরুল আলম আজম, বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ইউসুফ আলী, মাইনুল হক ডলার, গোবরাতলা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য রাফেজ মীরসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। খেলায় সার্বিক সহযোগিতা করেন সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “বালিয়াডাঙ্গা হেল্পলাইন” এর স্বেচ্ছাসেবকরা।

প্রতিযোগিতায় বি গ্রুপে প্রথম হয় চাপড়ার ফারুক, দ্বিতীয় নওগাঁর তানোরের নাদিম, তৃতীয় স্থান অর্জন করেন সাহাপুরের এনামুল। সি গ্রুপে প্রথম হয় বরিয়ার বাচ্চু, রাজশাহীর মোহনপুরের আনারুল ও নওগাঁর সাপাহারের মারুফ। এ গ্রুপে প্রথম হয় মহাব্বতপুরের আলী, দ্বিতীয় চাপড়ার জলিল ও তৃতীয় স্থান অর্জন করেন বরিয়ার মাহবুব।

প্রতিযোগিতায় বড় ঘোড়া নিয়ে গঠিত এ গ্রুপের প্রথম দলকে পুরস্কার হিসেবে ২৪ ইঞ্চি এলইডি টিভি, দ্বিতীয় দলকে ডাবল বার্নারের গ্যাসের চুলা ও তৃতীয় দলকে সিঙ্গেল বার্নারের গ্যাসের চুলা, মাঝারি আকারের ঘোড়া নিয়ে গঠিত বি গ্রুপের প্রথম দলকে ডাবল বার্নারের গ্যাসের চুলা, দ্বিতীয় দলকে সিঙ্গেল বার্নারের গ্যাসের চুলা ও তৃতীয় দলকে ইলেকট্রিক কেটলি এবং ছোট ঘোড়া নিয়ে গঠিত সি গ্রুপের প্রথম দলকে একটি মোবাইলফোন, দ্বিতীয় দলকে সিঙ্গেল বার্নারের গ্যাসের চুলা ও তৃতীয় দলকে ইলেকট্রিক কেটলি প্রদান করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ