আজ ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিবগঞ্জের সোনামসজিদে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন-দৈনিক বাংলার নিউজ

 

শিবগঞ্জ(চাঁপাইনবাবগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে এক প্রেমিকার দু’দিন থেকে অনশন করছে বলে সংবাদ পাওয়া গেছে। গত বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে শিবগঞ্জ উপজেলার সোনামসজিদ তোহখানা এলাকার মোঃ কালুর ছেলে প্রেমিক সুমন আলী(২৫) এর বাড়িতে চলে আসেন একই উপজেলার দাইপুখুরিয়া ইউনিয়নের কালামপুর-কুয়েতপাড়ার সাদিকুল ইসলামের মেয়ে ও সুমন আলী প্রেমিকা মোসাঃ সুকতারা খাতুন (২০)। জানা গেছে, প্রেমিক সুমন আলীর বাড়িতে গত বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে প্রেমিকা মোসাঃ সুকতারা খাতুন বিয়ের দাবিতে অনশন করছেন। অনশনের খবর ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন এলাকা থেকে উৎসুক জনতা সুমন আলীর বাড়িতে ভিড় জমান। তবে, প্রেমিকা বাড়িতে চলে আসলে সুমন পালিয়ে যায় বলে জানায় এলাকাবাসী। এব্যাপারে প্রেমিকা প্রেমিকা মোসাঃ সুকতারা খাতুন জানান, ২০১৯ সালের জুন মাসে আমার মোবাইল নম্বর তার বন্ধুদের কাছ থেকে সুমন সংগ্রহ করে। পরে আমাকে কল করে বিভিন্নভাবে প্রেম নিবেদন করে। কিন্তু শুধু মোবাইল ফোনে কথা বলে কোনো সিদ্ধান্ত নিবো বলে জানাই সুমনকে। পরে আমরা দু’জন দেখা করি এবং এক পর্যায়ে আমরা প্রেম জড়িয়ে পড়ি। প্রেম এক পর্যায়ে আমার প্রেমিক সুমন আমাকে বিয়ে করবে বলে আমার সাথে বেশ কয়েকবার শারীরিকভাবে সম্পর্ক করে। কিন্তু বিয়ে কথা বললে সে বিভিন্নভাবে টালবাহানা করে এবং যোগাযোগ কমিয়ে দেয়। বাধ্য হয়ে বিয়ের দাবিতে আমি সেচ্ছায় সুমনের বাড়িতে চলে আসি গত বৃহষ্পতিবার। এব্যাপারে সুমন ও তাঁর পরিবারের লোকজনের সাথে দেখা করার চেষ্টা করলে তাদের বাড়িতে পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে, প্রেমিকা সুকতারা খাতুনের এলাকার সংরক্ষিত আসনের নির্বাচনের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মোসা. সমিজন বেগম জানান, এই মেয়েটি আমার ওয়ার্ডেই বাড়ি। গতকাল বৃহষ্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে তার মা-বাবা আমার কাছে এসে বলে আমার মেয়েকে খুঁজে পাচ্ছি না। পরে আমাকে সাথে নিয়ে তোহখানা এলাকায় সুমনের বাড়িতে দেখি। পরে জানতে পারি সুমনের সাথে তার দেড় বছর ধরে সম্পর্ক রয়েছে। বিষয়টি এই ওয়ার্ডের মেম্বারকে জানাই এবং তাঁকে নিয়ে আমরা সমাধানের চেষ্টা করি। কিন্তু বৃহষ্পতিবার কোনো সমাধান হয়নি। তিনি আরো বলেন, ছেলের বাবা মেয়েকে কিছু অর্থ দিয়ে সমাধান করে নিতে চেয়েছিলো কিন্তু মেয়ের একটাই দাবি বিয়ে করবে। তাই শুক্রবার আবারো ছেলে সুমনের বাড়িতে অনশনে বসে। এব্যাপারে শাহবাজপুর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ড সদস্য আলহাজ্ব মো. জাকির হোসেন সতত্যা স্বীকার করে বলেন, ছেলের পরিবারের সকলে পলাতক রয়েছে। তাদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি। তাদের ছাড়া কোনো সমাধান করা সম্ভব নয়। এ সংবাদ লেখা আগ পর্যন্ত প্রেমিকা সুকতারা খাতুন প্রেমিক সুমনের বাড়িতে অনশনে রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ