আজ ১৩ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করলে সেই মেয়েকে মারধর করলো কিশোরগ্যাং-দৈনিক বাংলার নিউজ

মো. আল আমিন খান চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ থানাধীন কানসাট সোলেমান ডিগ্রী কলেজে এক নারী লাঞ্ছিত হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। জানা যায় ভূক্তভূগী নারী মোসা. তাজরিন খাতুন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ থানাধীন সত্রাজিতপুর এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা, মো. ওয়াসিম মিয়ার কন্যা।

তাজরিন খাতুন জানায় তিনি একটি অরাজনৈতিক ও অলাভজনক সেচ্ছাসেবী সংগঠনের নবীন উদ্যোক্তা।
তিনি এ সংগঠনের মাধ্যমে সমাজের অসহায় দরীদ্র সুবিধা বঞ্চিত নারী শিশু কিশোরীদের বিনামূল্যে পাঠদান ও খেলাধুলায় সহযোগীতা করেন।

ঘটনার বিষয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, প্রতিদিনের ন্যায় গত ২০জুন ২০২২খ্রি. সোমবার বিকেল পাঁচটার সময় শিশুদের পাঠদান শেষে, খেলাধুলা প্রাকটিস’র লক্ষ্যে খেলার জন্য শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সাত্তার ক্রীড়া একাডেমী কোচ ও দৈনিক খবর পত্র পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি মো. সেতাউর রহমানের নিকট সোলেমান ডিগ্রী কলেজে যাবার পথে কিশোর গ্যাং সদস্য দ্বারা লাঞ্ছিত হয়।

এক প্রশ্নের জবাবে মোসা. তাজরিন খাতুন বলেন প্রাকটিসের উদ্দ্যেশ্যে যাবার পথে কতিপয় কিশোরগ্যাং সদস্য হাকিম, তাজরিন খাতুন ও অসহায় নারী শিশু কিশোরীদের উত্যক্ত করার উদ্দ্যেশ্যে বাজে মন্তব্য করে ঐ কিশোরগ্যাং সদস্য।

সে সময় তাজরিন খাতুন প্রতিবাদ করলে কিশোরগ্যাং সদস্য হাকিম, তাজরিন খাতুন ও তার সাথে থাকা কোমলমতি কিশোরীদের গালমন্দ করলে বাকবিতন্ডা শেষে তারা মাঠে চলে যায়।

কিছুসময় অতিবাহিত হবার পরে বাকবিতন্ডা’র খোভ’র জের ধরে তাজরিন খাতুনকে হুমকি দিয়ে কলেজ মাঠে প্রবেশ করে বখাটে বেশ কয়েকজন। এসময় প্রাকটিস’র শেষের দিকে আবারও তাজরিন খাতুন এর উপর হামলা এবং প্রহার শুরু করে কিশোরগ্যাং বখাটে সদস্যরা, এ বিষয়ে তাজরিন খাতুন বলেন আইনী পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

পরে ঘটনাস্থলে উপস্থিত শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সাত্তার ক্রীড়া একাডেমীর কোচ দৈনিক খবরপত্রের জেলা প্রতিনিধি সেতাউর রহমান, বিজয় টেলিভিশন’র জেলা প্রতিনিধি নাদিম হোসেন, ব্যাবসিক আব্দুর রহিম কয়েকজন ব্যাবসায়ী ও নাইটগার্ডসহ অনেকের হস্তক্ষেপে ঘটনা নিয়ন্ত্রনে আনা হয় বলে জানা যায়।

এ বিষয়ে খোজ নিয়ে আরও জানা যায় অভিযুক্তরা হলো পুকুরিয়া কাজিপাড়া, শিবগঞ্জ, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৪জন এরা হলো মাহেদুরের ছেলে আ. হাকিম (১৫), একই গ্রামের চিটুর ছেলে আসিক (১৭), ও ইমু ড্রাইভারের ছেলে সাব্বির (১৫), মৃত কালামের ছেলে শরীফ (২২) সহ অজ্ঞাত আরও ৫-৭ জনকে অভিযুক্ত করে শিবগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয় পরদিন ২১শে জুন ২০২২খ্রি. মঙ্গলবার।

অভিযোগপত্র ও পুলিশ সূত্রে জানা যায় অজ্ঞাত ৫-৭ জনসহ মোট ১০-১২জনকে অভিযুক্ত করে, ঘটনার একটি লিখিত অভিযোগপত্র শিবগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বরাবর জমা দেয়া হয়। ওসি মো. চৌধুরী জোবায়ের আহম্মেদ বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত পূর্বক আইনী ব্যাবস্থা গ্রহন করে দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।

সাহসী তাজরিন খাতুন বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নারী শিশু কিশোরদের বিষয়ে যথেষ্ট সচেতন, ইভটিজিং আমাদের রুখতে হবে তাই তিনি সংবাদ মাধ্যমে এ ঘটনায় জড়িত সকলকে আইনের আওতায় এনে কঠোর সাজা প্রদানের জোড়ালো আবেদন জানিয়েছেন সংশ্লীষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট।

উল্ল্যেখ্য, গত ৮জুন ২০২২খ্রি. কানসাট উচ্চবিদ্যালয়ে পরীক্ষা চলাকালীন সময়, ছাত্রের নিকট থেকে মোবাইফোন জব্দ করে স্কুল শিক্ষীকা, সে ঘটনা কেন্দ্রীক উক্ত কিশোরগ্যাং সদস্যরা পরবর্তীতে ঐ শিক্ষিকা ও স্কুলের প্রধান শিক্ষককে মারধর করে লাঞ্ছিত করে।

উভয় ঘটনার ভিডিও সংরক্ষিত আছে।

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ