আজ ২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১২ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সাভারে বলাৎকারের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :
সাভার উপজেলা কাউন্দিয়া ইউনিয়নের আজিজুল উলুম কাউন্দিয়া মডেল মাদ্রাসার বিবাদী শিক্ষক হাফেজ শামীম (২১) এর বিরুদ্ধে একাধিক ছাত্রকে বলৎকারের অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি জানাজানি হলে অভিভাবকদের চাপের মুখে অভিযুক্ত শিক্ষককে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। তবে স্থানীয়দের অভিযোগ, মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল আব্দুল আজিজ তার সহযোগিতায় অভিযুক্ত শিক্ষককে পালিয়ে যাবার সুযোগ করে দেওয়া হয়।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের অভিভাবক ও স্থানীয়রা জানান, সাভার মডেল থানাধীন কাউন্দিয়া, বাগসাত্রা, তসলিম প্লট অবস্থিত আজিজুল উলুম কাউন্দিয়া মডেল মাদ্রাসায় শিক্ষার্থীরা ৩য় ও ৪র্থ জামাত, নাজরা বিভাগে পড়াশোনা করে। বিবাদী ১। হাফেজ শামীম (২১) অত্র মাদ্রাসার শিক্ষক। আনুমানিক ৩/৪ মাস পূর্বে উক্ত বিবাদী একাধিক শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন তারিখ ও সময়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিবাদীর মাদ্রাসার শয়ন কক্ষ ও অন্যান্য স্থানে ডাকিয়া নিয়া জোর পূর্বক একাধিকবার বলৎকার করে। বলৎকার ঘটনার ফলে শিক্ষার্থীদের মানসিক ও শারীরিকভাবে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। ভুক্তভোগী এক শিক্ষার্থীর পিতা মো: জাকির হোসেন. পিতা মো: আ: মালেক মিজি. মাতা মোসাম্মৎ নুরজাহান বেগম। সাভার মডেল থানায় ৬/৮/২০২৩ইং তারিখ একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং ৬৮২০(৩)১/ তারিখঃ- ০৬/০৮/২৩।

এ বিষয়ে বাদী জাকির হোসেন বলেন, আমার ছেলে শারীরিক ও মানসিকভাবে অসুস্থ্য হইলে আমি আমার ছেলেকে বাসায় নিয়ে আসি এবং চিকিৎসা প্রদান করি। পরবর্তীতে আমি আমার ছেলেকে তাহার অসুস্থ্যতার কারন জিজ্ঞাসা করিলে আমার ছেলে প্রথমে এড়িয়ে যায় এবং কিছু বলে না। একপর্যায়ে আমার ছেলে আমাকে জানায় যে, উক্ত বিবাদী হাফেজ শামীম গত ২০/০৪/২০২৩ ইং তারিখ সকাল আনুমানিক ১০.৩০ ঘটিকাসহ বিভিন্ন তারিখ ও সময়ে আমার ছেলেকে এবং তার সহপাঠি ১। মোঃ আরিফ মিয়া (০৯), ২। মোঃ নিহাত (০৯) মোঃ তৈয়ুবর রহমান (১০) দের সহ আরও কয়েকজন ছেলেকে উল্লেখিত মাদ্রাসার ভিতরে বিবাদীর শয়ন কক্ষ ও অন্যান্য স্থানে ডাকিয়া নিয়া তাহাদের পরনের থাকা গেঞ্জি ও পায়জামা খুলিয়া তাহাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক বলাৎকার করে এবং উক্ত ঘটনা কাউকে বলিলে বিবাদী তাহাদেরকে মারধরের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। পরবর্তীতে আমি উক্ত ঘটনার বিষয়টি অবগত হলে অন্যান্য ভুক্তভোগী ছাত্রদের অভিভাবকদের সাথে যোগাযোগ করি এবং সকলের সম্মতিতে মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল কে

বিবাদী শামীমের কথা জিজ্ঞাসা করিলে প্রিন্সিপাল আব্দুল আজিজ জানান যে, বিবাদী শামিম কে অত্র মাদ্রাসা হইতে চাকুরী চ্যুত করা হয়েছে। বর্তমানে বিবাদী শামীম কারাগারে আছেন।

এ বিষয়ে কাউন্দিয়া ফাড়ির এস আই আল আমিন হাওলাদার বলেন, বাদী জাকির হোসেনের দায়ের করা মামলায় বিবাদী শামীমকে গ্রেফতার করা হয়েছে বর্তমানে শামীম কারাগারে আছেন।

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com